কোর্ট ফি ও এর হিসাব

কোর্ট ফি কি?

দেওয়ানী মামলা করতে গেলে, প্রতি মামলায় আদালতকে একটি নিদিষ্ট পরিমাণ ফি বা খরচ দিতে হয়, আদালতকে দেওয়া এই খরচ কে কোর্ট ফি বলে। কোর্ট ফি সরকারের আয়ের একটি উৎস, সাধারণত প্রতি বছর সরকার তার বার্ষিক অর্থ পরিকল্পনায় কি বা কত হারে কোন বিষয়ে কেমন কোর্ট ফি নেয়া হবে তা নির্ধারণ করে।

কোর্ট ফি

কোর্ট ফি নির্ধারন।

কোর্ট ফি নির্ধারণ

কিভাবে কোর্ট ফি নির্ধারণ করা হবে তা Court Fees Act 1870 এর Chapter III এবং Schedule I এবং II তে বলা আছে।

কোর্ট ফি ২ ধরনের।

  • মূল্যমানের উপর ভিত্তি করে [Ad-valorem court fee]
  • নির্দিষ্ট [ Fixed court fee]

মূল্যমানের উপর ভিত্তি করে [ Ad-valorem court fee]

কোন মোকদ্দমার মূল্যমান এর উপর বা দাবীর মূল্যমানের উপর ভিত্তি করে এই কোর্ট ফি নির্ণয় করা হয়ে থাকে।
(Table B, Schedule I of Court Fees Act 1870) যা নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হোল।

নির্দিষ্ট [ Fixed court fee]

কিছু বিষয়ে বিচারের বিষয়টি যাই থাকুক না কেন আদালতেকে সুধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট পরিমান ফি দিতে হয়। মোকদ্দমার মূল্যমানের উপর কোর্ট ফি নির্ভর করে না।

কোন বিষয়ে কোন ধরনের কোর্ট ফি লাগে

ক্রমিক

মামলার ধরণ

কোর্ট ফি

টাকা মামলা

এডভেলরেম

ক্ষতিপুরণ সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরেম

বাজার মূল্য আছে এরকম স্থাবর সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরেম

বাজার মূল্য নেই এরকম স্থাবর সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরেম

দখল পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইনের ৯ ধারার মামলা

অর্ধেক এডভেলরেম

নিষেধাজ্ঞার মামলা

এডভেলরেম

মুসলিম আইনের অধীনে অগ্রক্রয়

এডভেলরেম

দলিল রদ সংক্রান্ত

এডভেলরেম

দলিল সংশোধন সংক্রান্ত

এডভেলরেম

১০

চুক্তিরদ সংক্রান্ত

এডভেলরেম

১১

ঘোষণা মামলা পরবর্তী প্রতিকার সহ

এডভেলরেম

১২

চুক্তি প্রবলের মামলা

এডভেলরেম

১৩

ইজমেন্ট অধিকার সংক্রান্ত

এডভেলরেম

১৪

বন্ধক খালাসের মামলা

এডভেলরেম

১৫

ফোরক্লোসার সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরেম

১৬

মোহরানা সংক্রান্ত

নির্ধারিত

১৭

ভরণপোষণ সংক্রান্ত

নির্ধারিত

১৮

দাম্পত্য অধিকার পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত

নির্ধারিত

১৯

বিবাহ বিচ্ছেদ সংক্রান্ত মামলা

নির্ধারিত

২০

অভিভাবকত্ব সংক্রান্ত মামলা

নির্ধারিত

২১

সাধারণ ঘোষনা সংক্রান্ত মামলা

নির্ধারিত

২২

বাটোয়ারা ও পৃথক দখল সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরাম

২৩

অগ্রক্রয় মামলা ৯৬ ও ২৪ ধারায়

নির্ধারিত

২৪

সাধারন ঘোষণা সংক্রান্ত মামলা

নির্ধারিত

২৫

জমি, ভবন ও বাগান দখল পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরাম

২৬

সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইনের ৮ ধারার দখল পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত মামলা

এডভেলরাম

২৭

ভাড়া মামলা

এডভেলরাম

২৮

ডিক্রী রদের মামলা

এডভেলরাম

২৯

ঘোষণা ও নিষেধাজ্ঞা একত্রে

এডভেলরাম

৩০

আপিল ও রিভিশন

*

৩১

ক্রোক রদের মামলা

এডভেলরাম

৩২

ধারা ৭(i-xi) বহির্ভূত মামলা

এডভেলরাম

৩৩

বেদখল অবস্থায় ঘোষণা মামলা

এডভেলরাম

৩৪

দখলে থাকাবস্থায় ঘোষণা মামলা

নির্ধারিত

কিভাবে কোর্ট ফি নেওয়া হয়। (section 25)

১. ষ্ট্যাম্প এর মাধ্যমে।
২. যেখানে ষ্ট্যাম্প না পাওয়া যায় সেখানে –
ক. নগদ বা খ. রশিদের মাধ্যমে

যেভাবে কোর্ট ফি নির্ধারন করা হয়

একেক পদ্ধতিতে কোর্ট ফির মূল্য নির্ধারণ করা হয় তার আগে বিষয়ের মূল্য নির্ধারণ করা হয়। কিভাবে করা হয় নিচে তা সংক্ষেপে দেওয় হল।

১+২ অর্থ মোকদ্দমায়
এক বছরের দাবীকৃত টাকা X ১০ = মোট পরিমাণ।
৫০০০ X ১০ = ৫০০০০
ব্যতিক্রম: বিধবাদের ভরণপোষণের মামলায় শুধু এক বছরের দাবীকৃত টাকার পরিমাণ ধরলেই হবে।

৩. অস্থাবর সম্পত্তির দাবিতে
বিষয়ের মূল্য মানের সমান অর্থ।

৪. এমন সম্পত্তি যার বাজার মূল্য নেই বা নির্ধারণ করা যাচ্ছে না।
তবে, ক. সরকার নির্ধারিত মূল্যে সম্পত্তিটি ধরা হবে।

৫. জমি / বিল্ডিং এর দখলের জন্য।
বিষয়ের মূল্য মানের সমান অর্থ। অথবা,
মামলার ঠিক আগের বছরে সেই সম্পত্তি থেকে যত আয় হয়েছে তার ১৫ গুন।

৬. পার্টিশন ও সেপারেসনের মামলায়।
যে অংশের জন্য মামলা করা হয় তার সমপরিমাণ অর্থ।

৭.সুনির্দিষ্ট প্রতিকারের জন্য
ক. চুক্তির জন্য = কনসিডারেশনের মূল্য
খ. মরগেজের মামলায় = সিকিউরিটি অর্থ
গ. লিজ = প্রথম বছরের ভাড়া
ঘ. এওয়ার্ড = সম্পত্তির মূল্যমান

ফি নির্ণয়ের পদ্ধতি:

প্রথমে মোট বিষয় মূল্য থেকে. অর্থ মোকদ্দমার জন্য ২.৫% এবং বাকি সবের জন্য ২% হারে ধরতে হবে। তারপর যে ফলাফল আসবে তার উপর নির্ভর করে।

০- ১৫০০ টাকা হলে ১৫% বাড়বে।
যদি তা ২০০১ – ১৫০০০ টাকার মধ্যে হয় ১৫% কমবে
যদি তা ১৫০০০ টাকার বেশী হয় মধ্যে হয় ১৫% বাড়বে।
এবং যদি তা ২০০০ – ২৪০০ টাকার মধ্যে হয় তবে ২৮১.২৫ টাকা হবে।

ধরি বিষয় মূল্য ১৪০০
১৪০০০*২% = ২৮০ (অর্থ মোকদ্দমার ছাড়া বাকি সব কিছুর জন্য ২% )
= ২৮০*১৫ % =৪২ (০- ১৫০০ টাকা হলে ১৫% বাড়বে। )
অতএব কোট ফি হল, ২৮০+৪২ = ২৩৮
কিন্তু…

ক) মানি স্যুট বা অর্থঋণ মোকদ্দমার ক্ষেতে সর্বনিম্ন কোর্ট ফি হলো ৩০০ টাকা এবং সবোর্চ্চ কোর্ট ফি হবে ৫০,০০০ টাকা।
খ) দেওয়ানী মোকদ্দমার সর্বনিম্ন কোর্ট ফি হবে ৩০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ কোর্ট ফি হবে ৪০,২৫০ টাকা।
গ) সাকসেশন মোকদ্দমায় ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত ফ্রি। পরবর্তী ১,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত ১% এবং পরবর্তী ১৫,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত ২%।

Rayhanul Islam

রায়হানুল ইসলাম বর্তমানে আইন পেশায় নিয়জিত আছেন, এছাড়াও তিনি লেখালেখি করেন এবং ল হেল্প বিডির সম্পাদক। তথ্য ও প্রযুক্তি, মনোবিজ্ঞান এবং দর্শনে তার বিশেষ আগ্রহ রয়েছে। প্রয়োজনে: [email protected] more at lawhelpbd.com/rayhanul-islam

You may also like...

Leave a Reply

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: