সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইন (Specific Relief Act) – ১৮৭৭; কি এবং কেন? | 01

সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইন (Specific Relief Act) – ১৮৭৭; কি এবং কেন? | SR – 01

ধরুন আমরা কোন দেওয়ানি ক্ষতির (Civil Wrong) ক্ষতিপূরণ বা প্রতিকার চাই (বিচার), এখন এই প্রতিকার নানা ভাবেই পাওয়া যেতে পারে যেমন দেওয়ানি আইন ও দেওয়ানি কার্যবিধি অনুসরণ করে, এইসব দেওয়ানি আইনের মধ্যে আবার টর্ট, ন্যয়বিচার বিচার (Equity), বিশ্বাস (Trust) ইত্যাদির মাধ্যমে পাওয়া সম্ভব। সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইন – ১৮৭৭ বলবত হওয়ার আগে এত সব অনির্দিষ্ট আইন আর কার্যবিধির মধ্যে প্রচুর জটিলতা সৃষ্টি হত, এবং এমন এক অবস্থার সৃষ্টি হত যে ন্যায়বিচারের বিচারের স্বার্থে আদালতকে তার সামনে আসা সকল বিষয় শুনতে হত এবং এগুলো একেকটা একেক আইনের মাধ্যমে পরিচালিত হত। তাই বহু ব্যবহৃত কিছু বিষয়কে এই সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইন – ১৮৭৭ দ্বারা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হল এবং কি উপায়ে এসব সুনির্দিষ্ট বিষয়ের প্রতিকার পাওয়া যাবে তাও বলে দেওয়া হল।

এসব বিষয়গুলোকে ধারা ৫ মতে, নিম্নক্ত ৫ (পাচ) ভাগে ভাগ করা যায়:

১. নির্দিষ্ট সম্পত্তির দখল নেওয়া এবং দাবিদারের নিকট হস্তান্তর করা। (ধারা ৯ এবং ১১)
২. যেটা না করার জন্য দায়বদ্ধ এমন পক্ষকে সেই কাজ করা থেকে বিরত রাখা। যেমন: ইনজাংশন (ধারা ৫২, ৫৭)
৩. যেটা করার জন্য দায়বদ্ধ এমন পক্ষকে সেই কাজ সম্পাদন করার আদেশ দেওয়া। (ধারা ১২ এবং ৩০) যেমন: কোন চুক্তি সম্পাদন করতে বলা।
৪. কোন পক্ষের অধিকার নির্ধারণ করা এবং ঘোষণা দেওয়া। (ধারা ৩ থেকে ৪৩) যেমন: ঘোনামূলক ডিক্রি দেওয়া।
৫. রিসিভার নিয়োগ করা। (ধারা ৪৪)

তাছাড়াও  সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইনের মাধ্যমে দলিল সংশোধন ও বাতিল করা হয়ে থাকে । (ধারা: ৩১-৩৪, ৩৯-৪১)

আপনাদের এই টিউটোরিয়ালটি ভাল লাগলে কমেন্ট বক্সে আমাদের জানান এবং শেয়ার করে অনুপ্রানিত করুন। আপনারা আগ্রহ প্রকাশ করলে আমাদের এই প্রিমিয়াম টিউরিয়ালগুলো আপনাদের জন্য একে একে প্রকাশ করা হবে।

Rayhanul Islam

রায়হানুল ইসলাম বর্তমানে আইন পেশায় নিয়জিত আছেন, এছাড়াও তিনি লেখালেখি করেন এবং ল হেল্প বিডির সম্পাদক। তথ্য ও প্রযুক্তি, মনোবিজ্ঞান এবং দর্শনে তার বিশেষ আগ্রহ রয়েছে। প্রয়োজনে: [email protected] more at lawhelpbd.com/rayhanul-islam

You may also like...

Leave a Reply

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: